ভিন্ন রকমের এক ইতিহাস গড়ে আবারও অভিশংসিত হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কয়েক ঘণ্টার বিতর্ক শেষে দেশটির সংসদের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে বুধবার তাকে অভিশংসন করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্প দু’বার অভিশংসিত হলেন।

ট্রাম্পের দল রিপাবলিকান পার্টির ১০ জন আইনপ্রণেতাও অভিশংসনের পক্ষে ভোট দিয়েছেন। প্রস্তাবের পক্ষে ভোট পড়েছে ২৩১ এবং বিপক্ষে ১৯৭টি। সংখ্যাগরিষ্ঠতার জন্য প্রয়োজন ছিল ২১৭ ভোট।

প্রতিনিধি পরিষদে রিপাবলিকান দলের যে ১০ জন অভিশংসনের পক্ষে ভোট দিয়েছেন তারা হলেন- সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট ডিক চেনির মেয়ে লিজ চেনি, অ্যান্থনি গঞ্জালেজ, অ্যাডাম কিনজিংগার, জন ক্যাটকো, জেইমি হেরেরা, ড্যান নিউহাউজ, পিটার মেইজার, ফ্রেড আপটোন, টম রাইস ও ডেভিড ভ্যালাদাও।

লিজ চেনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের কোনো প্রেসিডেন্ট তার শপথের চেয়ে বড় বিশ্বাসঘাতকতা এমনভাবে আর কখনও করেননি।

ক্ষোভ প্রকাশ করে ফ্রেড আপটোন বলেন, আমার অভিশংসনের ভোটের অর্থ ছিল একটি স্পষ্ট বার্তা পাঠানো। আর তা হলো, শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে দেশ কোনো প্রেসিডেন্টের কোনো প্রচেষ্টা সহ্য করতে পারে না এবং করবে না।

প্রতিক্রিয়ায় ক্যাপিটলে দাঙ্গার ঘটনায় ট্রাম্পকে দায়ী করে এর জন্য ক্ষোভ প্রকাশ করেন অ্যান্থনি গঞ্জালেজ। একই সঙ্গে প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন অন্য আইনপ্রণেতারাও।

প্রতিনিধি পরিষদে ট্রাম্প অভিশংসিত হলেও তিনি স্বপদে বহাল থাকবেন। সিনেটে প্রস্তাবটি পাস না হওয়ায় তাকে পদ ছাড়তে হচ্ছে না। ২০ জানুয়ারির আগে সিনেট অধিবেশন বসছে না বলে জানিয়েছেন সিনেট নেতা মিচ ম্যাককনেল। সেদিনই মেয়াদ শেষ হবে ট্রাম্পের এবং অভিষেক হবে জো বাইডেনের।

 

আমাদের ফেইসবুক Link :  ট্রাস্ট নিউজ ২৪

By Desk