প্রবল ভূমিকম্প প্রশান্ত মহাসাগরের দক্ষিণে। নতুন বছরের শুরুতেই সুনামির আতঙ্ক অস্ট্রেলিয়ায়। সতর্কতা জারি করা হয়েছে উত্তর নিউজিল্যান্ডেও।

জানা গেছে, এই ভূমিকম্পের উৎসস্থল ছিল পূর্ব অস্ট্রেলিয়া থেকে ৩৪০ মাইল দূরে।

রিখটার স্কেলের কম্পনের তীব্রতা ধরা পড়ে ৭.৫। ভূমিকম্পের রেশ পৌঁছেছে উত্তর নিউজিল্যান্ডেও। আর তাতেই সুনামির আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। উত্তর নিউজিল্যান্ডে ইতিমধ্যেই সুনামির সতর্কতা জারি করেছে প্রশাসন।

জানা গেছে, অস্ট্রেলিয়ার মূল ভূখণ্ড থেকে ৫৫০ কিলোমিটার দূরে লর্ড হোয়ই দ্বীপে সুনামি আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আমেরিকার জিওলজিক্যাল সার্ভের রিপোর্ট বলছে, সিঙ্গাপুরের স্থানীয় সময় গতকাল বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারী) রাত ৯.‌২০ নাগাদ নিউ ক্যালেডোনিয়া থেকে পূর্বে ৪১৫ কিলোমিটার দূরে ১০ কিলোমিটার গভীরতায় কম্পন অনুভূত হয়। ইতিমধ্যেই নিউজিল্যান্ড, নিউ ক্যালেডোনিয়া এবং ভানুয়াতুতে সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

ভূতত্ত্ববিদরা জানিয়েছেন, অত্যাধিক সক্রিয় হয়ে উঠেছে ইন্দো অস্ট্রেলিয়ান প্লেট।

এই প্লেটের একেবারেই দক্ষিণে ভানুয়া ২ অঞ্চল। সেই অঞ্চলটিই ভূমিকম্পের উৎসস্থল। ওই অঞ্চলে ইতিমধ্যেই ৬.২ এর থেকে বেশি মাত্রায় আরও দু’বার ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। শুধু তাই নয়, ইন্দো অস্ট্রেলিয়ান প্লেট সক্রিয়তার কারণে দক্ষিণ এশিয়ার দ্বীপগুলিতে একাধিকবার ভূমিকম্পের আশঙ্কা রয়েছে।

উল্লেখ্য, গত বছরের মাঝামাঝি ভয়াবহ ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে আমেরিকা।

রিখটার স্কেলে কম্পন মাত্রা ছিল ৭.৮ । সেবারও সুনামির সতর্কতা জারি করা হয় মার্কিন মলুকে। যদিও শেষ পর্যন্ত কোনও অঘটন ঘটেনি।

 

আমাদের ভেইসবুক Link :  ট্রাস্ট নিউজ ২৪

 

By Desk