বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসন করা হয়েছে। দেশটির ইতিহাসে এই প্রথম কোনও প্রেসিডেন্টকে দ্বিতীয়বারের মত অভিশংসিত করা হলো।

দেশটির স্থানীয় সময় বুধবার প্রতিনিধি পরিষদে ২৩২-১৯৭ ভোটে ট্রাম্পকে অভিশংসনের প্রস্তাব পাস হয়। রিপাবলিকান দলের ১০ জন সদস্য ট্রাম্পের বিপক্ষে গিয়ে ভোট দিয়েছে।

গত সপ্তাহে ক্যাপিটল ভবনে নজিরবিহীন হামলা চালায় ট্রাম্পের উগ্র সমর্থকেরা। সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত পাঁচ জনের নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আর ওই হামলার ট্রাম্পের ভাষণের মাধ্যমে তার অনুসারীরা প্ররোচিত হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠে। এই অভিযোগেই ট্রাম্পকে দ্বিতীয়বার অভিশংসিত ঘোষণা করলেন ডেমোক্র্যাটরা।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসনের প্রস্তাব প্রতিনিধি পরিষদে পাস হলেও তাকে আর ক্ষমতা থেকে সরানো যাচ্ছে না। কেননা ২০ তারিখের আগে সিনেটে কোন অধিবেশন বসছে না।

তবে সিনেটে অভিশংসনের প্রস্তাব পাস হলে ট্রাম্প আর কখনও নির্বাচনে আর দাঁড়াতে পারবেন না।

প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি বলেন, কেউ আইনের উর্ধে নয়, এমনি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পও নন।

এদিকে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ট্রাম্পের অভিশংসন নিয়ে এখন পর্যন্ত কোন মন্তব্য করেননি।

বুধবার ট্রাম্পকে অভিশংসনের প্রস্তাবের ভোটের আগে কয়েক ঘণ্টা ধরে বিতর্ক চলে। সেসময় ক্যাপিটলের ভিতরে এবং বাইরে দেশটির জাতীয় নিরাপত্তা রক্ষীরা অবস্থান করছিল।

এর আগে দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা এফবি আই সর্তক করে জানিয়েছে, বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠান ঘিরে ওয়াশিং টন এবং ৫০ টি রাজ্যে সশস্ত্র বিক্ষোভ হতে পারে। বিবিসি, এনডিটিভ।

 

আমাদের ফেইসবুক Link :  ট্রাস্ট নিউজ ২৪

By Desk