ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলায় বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত ৭ জনের মধ্যে ৬ জনই এক পরিবারের। রোববার বেলা পৌনে একটার দিকে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরার পথে নবজাতকসহ একই পরিবারের ছয়জনের প্রাণহানি হয়। নিহত অপর ব্যক্তি অটোরিকশাচালক। উপজেলার গাছতলা বাজার এলাকায় ময়মনসিংহ-নেত্রকোনা মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন মো. ফারুক (২৫), তাঁর স্ত্রী মাসুমা বেগম (২০), নবজাতক মেয়ে, ভাই নিজামউদ্দীন, ভাবি জোসনা বেগম (২৫), বোন জুলেখা খাতুন (৩৫)। প্রাথমিকভাবে নিহত অটোরিকশাচালকের নাম জানা যায়নি।

নিহত ফারুকের চাচাতো ভাই আনোয়ার হোসেন বলেন, গত সপ্তাহে ফারুকের স্ত্রী মাসুমার সন্তান প্রসবের জন্য তাঁকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পাঁচ দিন আগে তিনি কন্যাসন্তানের জন্ম দেন। আজ পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে নবজাতকসহ অটোরিকশায় করে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় তাঁরা মারা যান।

শ্যামগঞ্জ হাইওয়ে থানার পুলিশ পরিদর্শক নয়ন দাশ বলেন, নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে ছয়জন একই পরিবারের। তাঁদের বাড়ি নেত্রকোনার পূর্বধলার আগিয়া ইউনিয়নের চেচুয়ালেন্দি গ্রামে।

এ বিষয়ে তারাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের প্রথম আলোকে বলেন, গাছতলা বাজারসংলগ্ন এলাকায় ময়মনসিংহ থেকে ছেড়ে আসা নেত্রকোনার পূর্বধলাগামী একটি অটোরিকশার সঙ্গে নেত্রকোনা থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুর্ঘটনাটি ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই সাতজন প্রাণ হারান।

 

আমাদের ফেইবুক Link :  ট্রাস্ট নিউজ ২৪

By Desk