রংপুরের কাউনিয়ায় অটোরিকশা থেকে নামিয়ে এক গৃহবধূকে পাঁচ যুবক রাতভর ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার রাতে স্বামীর বাড়ি কুড়িগ্রাম থেকে রংপুর নগরীর সাতমাথা এলাকায় বাবার বাড়ি যাচ্ছিলেন ওই গৃহবধূ। গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে মানাস নদীর পাড় থেকে নির্যাতিতাকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিক্যালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ ৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বুধবার রাত ৮টার দিকে সাজু মিয়া নামে পূর্বপরিচিত এক যুবক ‘কথা আছে’ বলে কাউনিয়ার বেইলি ব্রিজ এলাকায় অটোরিকশা থেকে গৃহবধূকে নামিয়ে নেন। কিছুক্ষণের মধ্যে তাকে পাশেই মানাস নদীর পাড়ে নিয়ে ধর্ষণ করেন তিনি। পরে আরও চার যুবক এসে পালাক্রমে রাতভর গৃহবধূকে ধর্ষণ করে। ভোরের দিকে নির্যাতিতা সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়লে তাকে ফেলে চলে যায় সাজুসহ ৫ জন। ভোরে এলাকাবাসী তাকে সেখানে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে মুমূর্ষু অবস্থায় সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে কাউনিয়া থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।

সকালে তাকে রংপুর মেডিক্যালে ভর্তি করে পুলিশ। কাউনিয়া থানার ইনচার্জ মাসুমুর রহমান জানান, ৩০ বছরের বয়সী ওই গৃহবধূ নিজেই বাদী হয়ে কাউনিয়া থানায় ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। ওই মামলায় গতকাল দুপুর পর্যন্ত ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা হলেন- পূর্ব-কানাইঘাটের আবদুল আখেরের ছেলে সাজু মিয়া, পূর্ব-চানঘাটের আবদুল কাদেরের ছেলে রাজু আহমেদ, বল্লভ বিষু গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে আহসান কবীর সোহান ও তার ভাই আলমগীর হোসেন।

আমাদের ফেইবুক Link :  ট্রাস্ট নিউজ ২৪

By Desk