কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে আকিজ বিড়ি কারখানায় শ্রমিক-পুলিশে সংঘর্ষ হয়েছে। শ্রমিকদের প্রতিহত করতে গিয়ে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে পুলিশ। এ ঘটনায় এক শ্রমিক গুলিবিদ্ধসহ অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন। শনিবার (৯ জানুয়ারি) সকালে উপজেলার হোসেনাবাদে আকিজ বিড়ি কারখানার মূল ফটকের সামনে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

কুষ্টিয়ায় পুলিশের সঙ্গে বিড়ি শ্রমিকদের সংঘর্ষ গুলি

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকালে কারখানায় প্রবেশের নির্দিষ্ট সময় পেরিয়ে যাওয়ার পর বেশ কিছু শ্রমিক জোর করে কারখানায় ঢোকার চেষ্টা করেন। এ সময় নিয়মানুযায়ী কারখানার নিরাপত্তাকর্মীরা বাধা দিলে উভয়পক্ষের মধ্যে বাক-বিতণ্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে উঠলে কারখানা ম্যানেজার আমিনুল ইসলাম দৌলতপুর থানায় খবর দেন। পরে পুলিশ এসে শ্রমিকদের সেখান থেকে জোর করে সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলে তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ শুরু করেন। তাদের মোকাবিলায় পুলিশ প্রথমে লাঠিচার্জ করে।

পরে পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে। এতে শ্রমিকরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায় এবং এক শ্রমিক গুলিবিদ্ধসহ অন্ততপক্ষে পাঁচজন আহত হন। পরে কারখানার সব শ্রমিক কাজ বন্ধ করে হোসেনাবাদ বাজারে কুষ্টিয়া প্রাগপুর সড়ক অবরোধ করে রাখে। তাদের সঙ্গে উপজেলার ফিলিপনগর কারখানার শ্রমিকরাও যোগ দেন। গুলিবিদ্ধ শ্রমিকের নাম শিপুল ইসলাম। তাকেসহ আহত শ্রমিকদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

শ্রমিকদের অভিযোগ, কারখানার ম্যানেজার আমিনুল ইসলামের নির্দেশে পুলিশ শ্রমিকদের ওপর গুলি চালিয়েছে। তারা অবিলম্বে ম্যানেজারের অপসারণ দাবি করেছেন। দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) শাহাদত হোসেন জানান, আত্মরক্ষার্থে পুলিশ ৩ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি তাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। রাস্তা অবরোধকারী শ্রমিকদের সেখান থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

আমাদের ফেইসবুক Link: ট্রাস্টনিউজ২৪