দিনাজপুর শিক্ষক সমিতির সভাপতি আহসানুল হক মুকুল বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণ এখন সময়ের দাবি। আপনি নিশ্চয় অবগত আছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর ১৯৭৩সালে প্রথম ৩৭হাজার প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে জাতীয়করণ করেছিলেন।

দিনাজপুরে শিক্ষক সমিতির  ১০০ বছর উদযাপন

বঙ্গবন্ধুর স্বপনস্বপ্ন ছিল মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণ। কিন্তু আর হলোনা। পরের ইতিহাস ছিল বেদনাদায়ক ও মর্মস্পর্শী এবং কলংকজনক অধ্যায়। আপনি জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। আপনি মানবতার মা। আপনি মুজিব জন্মশত বার্ষিকীতে উদ্যোগ নিয়ে মাধ্যমিক শিক্ষা ব্যবস্থা জাতীয়করণ করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দিতে পারেন। এতে শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়ন ও আর্থ সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন হবে এবং বিশ্বমানের শিক্ষা ব্যবস্থা বাস্তবায়ন হবে। জনগণ এবং রাষ্ট্রেরও আমূল পরিবর্তন হবে বলে শিক্ষক সমাজ প্রত্যাশা করে।

 

০৬ ফেব্রুয়ারী শনিবার দিনাজপুর উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির গৌরব ও ঐতিহ্যের ১০০ বছর উদযাপন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি দিনাজপুর জেলা শাখা আয়োজিত আলোচনা সভায় জেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো. আহসানুল হক মুকুল এ কথা বলেন। আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মাতলুবুল মামুন। বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি সদর উপজেলা শাখার সভাপতি মো. আব্দুল হামিদ এর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি মো. সামিদুর রহমান, দিনাজপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. জিয়াউল হক জিয়া, জেলা শিক্ষক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক হিরন্ময় দত্ত, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোক্তার হোসেন, সদর উপজেলা শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাসউদ আলম, কাহারোল উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি মাহবুব, পার্বতীপুর উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি আবু এহিয়া কুসুম প্রমুখ। আলোচনা সভা শেষে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির গৌরব ও ঐতিহ্যের ১০০ বছর উদযাপন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি দিনাজপুর জেলার উদ্যোগে একটি র‌্যালী বের হয়।

আমাদের ফেইসবুক Link : ট্রাস্টনিউজ২৪