উত্তর কোরিয়ায় কিমকে পরামর্শ দিতে চিকিৎসকদল পাঠালো চীন

China sends medical team to North Korea to advise Kim

উত্তর কোরিয়ায় কিমকে পরামর্শ দিতে  চিকিৎসকদল পাঠালো চীন
উত্তর কোরিয়ায় কিমকে পরামর্শ দিতে চিকিৎসকদল পাঠালো চীন

উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত পরামর্শ দিতে দেশটিতে একটি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদল পাঠিয়েছে চীন। কিমের অসুস্থতার খবর বিশ্ব গণমাধ্যমে প্রচার হওয়ার পর চীনের এই চিকিৎসকদল পাঠানোর খবর এলো। 

তবে চীন এব্যাপারে সরকারি কোনও বিবৃতি দেয়নি। চীনের অভ্যন্তরীণ তিনটি সূত্রের বরাত দিয়ে এখবর প্রকাশ করেছে সংবাদ সংস্থা রয়টার্স।
রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়, চীনের কমিউনিস্ট পার্টির আন্তর্জাতিক লিয়াজো বিভাগের শীর্ষ নেতা বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) উত্তর কোরিয়ার উদ্দেশে বেইজিং ত্যাগ করেন। তারসঙ্গে রয়েছেন একদল চিকিৎসক। চীনের পররাষ্ট্র বিভাগের এই নেতা উত্তর কোরিয়া সংক্রান্ত বিষয়ের দেখভাল করেন।

তবে রয়টার্স দাবি করেছে, চীনের ওই সূত্র এসংক্রান্ত অন্যান্য তথ্য দিতে রাজি হয়নি। এমনকি তাৎক্ষণিক চেষ্টায় লিয়াজো বিভাগের কোন নেতারও মন্তব্য সংগ্রহে করা যায়নি।
এর আগে স্থানীয় পত্রিকা ডেইলি এনকে অসমর্থিত সূত্রের বরাতে জানায়, গতবছরের আগস্ট থেকেই কিম জং উন হৃদযন্ত্রের বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছিলেন। পরে পায়েকতু পাহাড় থেকে ঘুরে আসার পর থেকে তার সেই সমস্যা আরও প্রকট হয়। এই সংবাদের পর উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন হৃদযন্ত্রে অস্ত্রোপচারের পর অসুস্থ হয়ে সংকটাপন্ন অবস্থায় রয়েছেন বলে বিশ্বের বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর আসে। 

উত্তর কোরিয়া সারাবিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগবিচ্ছিন্ন অবস্থায় থাকায় তার অসুস্থতার খবরের সত্যতা যাচাই একরকম অসম্ভব। অসুস্থতার খবর ছড়িয়ে পড়ার পরপরই এবিষয়ে প্রকৃত তথ্য জানতে তদন্ত শুরু করে দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো। পরে দক্ষিণ কোরিয়ার সরকারি সূত্র জানায়, কিমের অসুস্থতার খবর সত্য নয়।

এদিকে, শুক্রবার দক্ষিণ কোরিয়ার একটি সূত্র রয়টার্সকে জানায়, কিম জং উন জীবিত আছেন। শীঘ্রই তিনি জনসম্মুখে উপস্থিত হবেন। তবে তার বর্তমান শারীরিক অবস্থা নিয়ে কোন তথ্য জানাতে রাজি হয়নি ওই সূত্র।
অন্যদিকে, উত্তর কোরিয়া কর্তৃপক্ষ এখন পর্যন্ত কিমের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত কোনও খবরের প্রতিক্রিয়া জানায়নি।