ঝিনাইদহে পৌর নির্বাচনে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে এক কাউন্সিলর প্রার্থীর ভাই নিহতের ৫ ঘণ্টা পর আলমগীর খান বাবু নামে আরেক প্রার্থীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার (১৩ জানুয়ারি) রাতে কুমার নদ থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

কাউন্সিলর প্রার্থীসহ নিহত ২

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ঝিনাইদহের শৈলকুপা পৌরসভা নির্বাচনের প্রচারণার সময় বুধবার রাতে ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কবিরপুর এলাকায় সংঘর্ষে জড়ান কাউন্সিলর প্রার্থী শওকত আলী ও আলমগীর খান বাবুর সমর্থকরা। এতে গুরুতর আহত হন শওকত আলীর ছোট ভাই উমেদপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত আলীসহ ৫ জন। পরে তাদের উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে লিয়াকত আলীকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

ঘটনার পরই গাঢাকা দেন প্রতিদ্বন্দ্বী পাঞ্জাবি মার্কার প্রার্থী আলমগীর খান বাবু। কিন্তু রাত ১২টার দিকে ওই এলাকার পার্শ্ববর্তী কুমার নদ থেকে উদ্ধার করা হয় তার মরদেহ। এ ঘটনায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে এলাকাজুড়ে।

লিয়াকত আলীর মৃত্যু সংঘর্ষে হলেও আলমগীর খান বাবুর মৃত্যুর কারণ এখনো জানা যায়নি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি ঘটনার তদন্তে কাজ চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার বলেন, আমরা কাউন্সিলর পদপ্রার্থী আলমগীর খান বাবুর লাশ উদ্ধার করেছি। ঘটনা তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আমাদের ফেইসবুক Link: ট্রাস্টনিউজ২৪