চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে শ্রবণ প্রতিবন্ধী এক কিশোরীকে কৌশলে বাড়ীর অদূরে নিয়ে গণধর্ষণ করেছে সিএনজি স্কুটার চালকসহ ৬ যুবক। এই ঘটনায় পুলিশ ৪জনকে আটক করেছে। উপজেলার সুবিদপুর পশ্চিম ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামে নারকীয় এই ঘটনাটি ঘটে। আটককৃতদের মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে।

চাঁদপুরে শ্রবণ প্রতিবন্ধী কিশোরীকে গণধর্ষণ

জানা গেছে, ১১ জানুয়ারি সোমবার বিকালে শ্রবণ প্রতিবন্ধী কিশোরীটি ঔষধ কেনার জন্য বাড়ি থেকে বের হলে একই বাড়ির ইজিবাইক চালক টিটু কৌশলে ইজিবাইকে তুলে পার্শ্ববর্তী একটি বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। এরপর তাকে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে রাতে আইটপাড়া গ্রামের সিএনজি স্কুটার চালক শিপন, একই গ্রামের সিএনজি স্কুটার চালক মিজানুর রহমান রিপনসহ ৬জন মিলে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এরপর তারা কিশোরীটিকে একটি বাগানে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

আশেপাশের লোকজন টের পেয়ে কিশোরীটিকে উদ্ধার করে তার বাড়িতে পৌছে দেয়। বাড়ি ফিরে কিশোরীটি পরিবারের লোকজনকে ঘটনাটি জানায়। এরপর স্থানীয়ভাবে কিছু প্রভাবশালীরা বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা করে। গত সোমবার রাতে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ বিষয়টি জানতে পেরে অভিযানে বের হয়। রাতভর অভিযান চালিয়ে টিটু (২০), শিপন (২৫), রিপন (৪৫) ও আ: মালেককে (৪৫) আটক করে। ভিকটিমের মা বাদী হয়ে, গতকাল মঙ্গলবার ৬ জনকে অভিযুক্ত করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে থানায় মামলা দায়ের করে।

ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শহিদ হোসেন বলেন, সোমবার (১৮ জানুয়ারী) ঘটনাটি শোনার পর রাতেই সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত ৪ জনকে আটক করেছি। বাকি ২ জনকে আটকের চেষ্টা অব্যাহত আছে। কিশোরীটিকে উদ্ধার করে পরবর্তী আইনী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। আটককৃতদের চাঁদপুর আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

আমাদের ফেইসবুক Link : ট্রাস্টনিউজ২৪