ভিক্ষুক-প্রতিবন্ধীদের টার্গেট করে ধর্ষণ করতেন মজনু

প্রতিবন্ধী-ভিক্ষুক নারীরাও মজনুর হাত থেকে রেহাই পায়নি। মানসিক প্রতিবন্ধীদের টার্গেট করে এরপর সুযোগ বুঝে তাদের ধর্ষণ করতেন মজনু।

ভিক্ষুক-প্রতিবন্ধীদের টার্গেট করে ধর্ষণ করতেন মজনু
ভিক্ষুক-প্রতিবন্ধীদের টার্গেট করে ধর্ষণ করতেন মজনু

প্রতিবন্ধী-ভিক্ষুক নারীরাও মজনুর হাত থেকে রেহাই পায়নি। মানসিক প্রতিবন্ধীদের টার্গেট করে এরপর সুযোগ বুঝে তাদের ধর্ষণ করতেন মজনু। কুর্মিটোলায় যে স্থানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয় সে জায়গায় আরো অনেক নারী মজনুর ধর্ষণের শিকার হয়েছে। গ্রেফতারের পর আইন-শৃঙ্খলা-বাহিনীর কাছে প্রাথমিক স্বীকারোক্তি এমন তথ্য দিয়েছে মজনু।

(৮ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র্যাবের মিডিয়া সেন্টারে প্রেস ব্রিফিংয়ে র্যাবের গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল সারোয়ার বিন কাসেম এমন তথ্য জানান। তিনি বলেন, মজনু একজন ‘সিরিয়াল রেপিস্ট’। মজনু মানসিক প্রতিবন্ধী নারীদের টার্গেট করতেন এবং সুযোগ বুঝে তাদের ধর্ষণ করতেন। এছাড়া একই জায়গায় মজনু অনেকজনকে ধর্ষণ করেছে বলে স্বীকার করেছে। 

এ বিষয়ে আইনি কার্যক্রম চলমান রয়েছে। গ্রেফতারকৃত মজনুকে মামলার তদন্তকারী সংস্থা ডিবির কাছে হস্তান্তর করা হবে বলেও জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।

এর আগে মঙ্গলবার (০৮ জানুয়ারি) দিনগত রাতে গাজীপুরে অভিযান চালিয়ে আটকের পর মজনুকে গ্রেফতার দেখিয়েছে র‍্যাব । গ্রেফতার যুবকের কাছ থেকে ওই ছাত্রীর মোবাইল ফোন, চার্জার ও ব্যাগ পাওয়া গেছে। 

(৫ জানুয়ারি) রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস থেকে নামার পর এক ছাত্রীকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করে অজ্ঞাত এক যুবক। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা করেন। মামলায় অজ্ঞাত ৩০-৩৫ বছরের এক যুবককে আসামি করা হয়।