ফাইজারের আবিষ্কৃত করোনা ভাইরাসের টিকা নিয়ে ১৬ দিনের মাথায় ব্রেনে রক্তক্ষরণে মারা গেছেন যুক্তরাষ্ট্রের এক চিকিৎসক। গ্রেগরি মাইকেল (৫৬) নামের এই চিকিৎসক মায়ামিতে বসবাস করতেন। গত ৩ জানুয়ারি তিনি করোনার টিকা গ্রহণ করেছিলেন। মাইকেলের স্ত্রী হিদি নেকলম্যান বলেন, টিকা নেয়ার সময় আমার স্বামী একেবারেই সুস্থ ছিলেন। টিকা নেয়ার পর তিনি ইডিওপ্যাথিক থ্রোমবোসাইটোপেনিক পারপুরা (আইটিপি) জনিত স্ট্রোকে আক্রান্ত হন। রক্তে প্লেটলেটসের ঘাটতির কারণে বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। এ অবস্থাকে আইটিপি হিসেবে চিহ্নিত করা হয়।

ফাইজারের টিকা নিয়ে চিকিৎসকের মৃত্যু

এদিকে এ ঘটনার পর ফাইজার বলেছে, তারা এ বিষয়টিতে সক্রিয়ভাবে তদন্ত করছে। তাদের বিশ্বাস, টিকা নেয়ার সঙ্গে ওই ব্যক্তির মৃত্যুর কোনো সরাসরি সম্পর্ক নেই। ওদিকে গ্রেগরি মাইকেলের মৃত্যুর বিষয়টি তদন্ত করছে ফ্লোরিডা ডিপাার্টমেন্ট অব হেলথ এবং ফেডারেল সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)।

মাইকেলের স্ত্রী হিদি বিভিন্ন গণমাধ্যমকে আরো বলেছেন, আমার স্বামীর কোনো রোগ প্রতিরোধ বিষয়ক বিশৃঙ্খলা ছিল না। এছাড়া এমন কোনো লক্ষণ বা অবস্থা তার শরীরে ছিল না, যার কারণে তিনি আইটিপিতে আক্রান্ত হতে পারেন। হিদি এক সন্তানের মা। তিনি দাবি করেছেন, মন বলছে, আমার স্বামীর মৃত্যুর সঙ্গে শতভাগ সম্পর্ক আছে এই টিকার। এর অন্য কোনো ব্যাখ্যা হতে পারে না।

এ বিষয়ে নিউ ইয়র্ক টাইমসকে একটি বিবৃতি দিয়েছে ফাইজার। তাতে তারা বলেছে, আমরা ক্লিনিক্যাল পরীক্ষার সময় বা এই টিকা বাজারজাত করার পর এমন নিরাপত্তাজনিত কোনো সঙ্কেত পাইনি। তবে মাইকেলের পরিবারের শোকাহত সদস্যদের জন্য আমরা সহমর্মিতা প্রকাশ করছি।

আমাদের ফেইসবুক Link: ট্রাস্টনিউজ২৪