ঘোড়াঘাটে জমাজমির মামলার জের ধরে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে আটক পুলিশের হস্তেক্ষেপে উদ্ধার

দিনাজপুরে ঘোড়াঘাটে জমাজমি সংক্রান্ত মামলার জের হিসেবে বাবলু মিয়া (২৮) নামের এক যুবককে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে বেদম মারপিট করে দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখা হয়। পরে ঘোড়াঘাট থানা পুলিশের হস্তক্ষেপে তাকে উদ্ধার করা হয়েছে।

ঘোড়াঘাটে জমাজমির মামলার জের ধরে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে আটক পুলিশের হস্তেক্ষেপে উদ্ধার
ঘোড়াঘাটে জমাজমির মামলার জের ধরে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে আটক পুলিশের হস্তেক্ষেপে উদ্ধার

জিল্লুর রহমান, ঘোড়াঘাট (দিনাজপুর) প্রতিনিধি ঃ দিনাজপুরে ঘোড়াঘাটে জমাজমি সংক্রান্ত মামলার জের হিসেবে বাবলু মিয়া (২৮) নামের এক যুবককে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে বেদম মারপিট করে দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখা হয়। পরে ঘোড়াঘাট থানা পুলিশের হস্তক্ষেপে তাকে উদ্ধার করা হয়েছে। 

জানা গেছে, উপজেলার ভেলাইন গ্রামের মৃত কেরামত আলীর পুত্র সুলতান গংদের সাথে একই গ্রামের প্রাক্তন ইউপি সদস্য মজনু মিয়ার জমা জমি সংক্রান্ত মামলা মোকদ্দমা চলে আসছিল। 

সোমবার সকালে সুলতানের ছোট ভাই বাবুল মিয়া সকালে জমিতে পানি নেওয়ার জন্য মিজানুর রহমানের বাড়ির সামনে রাস্তায় দাঁড়ায়। এ সময় একা পেয়ে মজনু মিয়া ও তার পরিবারে লোকজন তাকে জোর পূর্বক তুলে নিয়ে গিয়ে নিজ বাড়িতে একটি চেয়ারের সাথে  রশি দিয়ে বেঁধে বেদম মারপিট করে । বিষয়টি স্থানীয় ইউপি সদস্য বাবুলকে উদ্ধার করার চেষ্টায় ব্যর্থ হয়। অবশেষে পরিবারের লোকজন থানায় আশ্রয় নিলে পুলিশ তাকে উদ্ধার  করে। পরিবারের লোকজন আহত বাবুলকে ঘোড়াঘাট হাসপাতালে ভর্তি করেছে। বিষয়টি ঘোড়াঘাট থানার পক্ষ থেকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বাবুলের জবান বন্দি গ্রহন করেছে।