চলমান মহামারি করোনাভাইরাসের মধ্যেই এবার বার্ড ফ্লুয়ের কবলে পড়েছে ভারত। দেশটির পাঁচটি রাজ্যে দেখা দিয়েছে বার্ড ফ্লুর প্রকোপ। এ কারণে মুরগি, মাছ, ডিম বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে দেশটির সরকার। সর্বশেষ কেরালায় মিলেছে বার্ড ফ্লু ভাইরাসের সন্ধান। এর ফলে সেখানে মুরগি, হাঁস বিক্রি বন্ধ হয়ে গেছে। সংক্রমণ যাতে মানুষের মধ্যেও ছড়িয়ে না পড়ে সেদিকে নজর রাখছে রাজ্যসরকার।

ভারতে হাঁস-মুরগি-ডিম বিক্রি ‘নিষিদ্ধ’

গত সপ্তাহে প্রথম বার্ড ফ্লু ধরা পড়ে হিমাচলের পরিযায়ী পাখিদের মধ্যে। এক হাজার ৭০০ পাখির মৃত্যু হয়েছে কাংড়া অঞ্চলে। এর পরেই রাজ্যে মাছ, মুরগি ও হাঁস বিক্রির ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। শুধু তাই নয়, মুরগির ডিম বিক্রিও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বার্ড ফ্লু মূলত পাখিদের একধরনের জ্বর। তবে এর জন্য এক ধরনের ভাইরাস দায়ী। যার নাম এইচ৫এন১। ভাইরাসটি দ্বারা আক্রান্ত হাঁস-মুরগি থেকেই মানবদেহে এটি প্রবেশ করার আশঙ্কা থাকে।

এ ছাড়া রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ এবং হরিয়ানায় হাঁসের শরীরে বার্ড ফ্লু’র জীবাণু পাওয়া গেছে। রাজস্থান সরকার হাঁস মালিকদের হাঁস মেরে ফেলার জন্য নির্দেশ দিয়েছে। একই সমস্যায় পড়েছেন মুরগি ব্যবসায়ীরা। করোনার জন্য এমনিই ছোট এবং মাঝারি ব্যবসায়ীদের অবস্থা খারাপ। লকডাউনের পর তারা ফের দাঁড়াতে চেয়েছিলেন কিন্তু বার্ড ফ্লুর জন্য তাদের মাথায় হাত। স্থানীয় বাজারেও বার্ড ফ্লুর প্রভাব পড়েছে। হরিয়ানা থেকে প্রচুর মুরগি আসে দিল্লিতে। দিল্লির এক মাংস ব্যবসায়ী জানিয়েছেন, মানুষ মুরগির মাংস কিনতে ভয় পাচ্ছে। এভাবে চললে মাংসের দাম অনেক নিচে নামবে। কেনা দামে বিক্রি করতে হবে মুরগির মাংস।

আমাদের ফেইসবুক Link: ট্রাস্টনিউজ২৪