বীরগঞ্জে গত ১ ফ্রেরুয়ারী সকালে পৌরসভার আলিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় প্রাইভেট পড়তে গিয়ে মাদ্রাসা ছাত্রী অপহরন হয়। অপহরনের ১১ দিনেও সন্ধান না পেয়ে হতাস হয়ে পরেছে পরিবার।

বীরগঞ্জে মাদ্রাসা ছাত্রী অপহরন

বীরগঞ্জ আলিয়া ফাজিল মাদ্রসার ছাত্রীর বাবা উপজেলার ভোগনগর ইউনিয়নের কালাপুকুর গ্রামের আব্দুল লতিফ জানান, মাদ্রাসা ছাত্রী মেয়ে ১লা ফ্রেরুয়ারী সকালে বাড়ী থেকে মাদ্রাসায় প্রাইভেট পড়তে গিয়ে ঘটনার শিকার হয়। পরে খোজ খবর নিয়ে জানতে পারেন একই ইউনিয়নের পার্শ্বের গ্রামের তারু মোহাম্মদের ছেলে তানভীর ওরফে তনু বিবাহের প্রলোভন দেখিয়ে ছাত্রীটিকে জোর পূর্বক অপহরন করে অজ্ঞাত স্থানে আটকে রেখেছে।

নিরুপায় পরিবারের অভিভাবক মাদ্রাসা ছাত্রী মেয়েকে উদ্ধারের জন্য ভোগনগর ইউপি চেয়ারম্যান বরাবর অভিযোগ করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ৫ ফ্রেরুয়ারী রাতে কালাপুকুর গ্রামে সাবেক ইউপি সদস্য লুৎফর রহমানের হাস্কিং মিল চাতালে আপোশ বৈঠক বসলেও বিষয়টি মিমাংসা হয়নি। তানভীর ওরফে তনুর দাদু সফিকুল আলম জানান, পুলিশ ঘটনার প্রাথমিক তদন্ত করেছে।

বীরগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আব্দুল মতিন প্রধান সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি নিখোঁজ হয়েছে মর্মে জিডি করা হয়েছে। নিখোজ দুজনই প্রাপ্ত বয়স্ক মাদ্রাসা ছাত্রীর অনুসন্ধান ও উদ্ধারের জোর তৎপতা চলছে।

আমাদের ফেইসবুক Link : ট্রাস্টনিউজ২৪