যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট বা ক্যাপিটল ভবনে ডোনাল্ড ট্রাম্প-সমর্থকদের হামলার পর জো বাইডেনের জয় আনুষ্ঠানিকভাবে প্রত্যয়নের জন্য কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশন ফের শুরু হয়েছে। বুধবার (৬ ডিসেম্বর) অধিবেশন চলাকালে ট্রাম্পের শত শত সমর্থক দেশটির আইনসভা কংগ্রেসের ভবন ‘ক্যাপিটল’-এ হামলা চালায়। এতে সবশেষ চারজন নিহতের খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্টে হামলা

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নির্বাচনে ট্রাম্পের পরাজিত হওয়ার ফল পাল্টে দেওয়ার লক্ষ্যে এই হামলা চালানো হয়। হামলায় বহু হতাহত হয়। কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনের সময় চালানো হামলা-সংঘর্ষের ঘটনায় অভূতপূর্ব বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির মুখে একপর্যায়ে কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশন স্থগিত করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্টে হামলা

হামলার ঘটনার পর পুলিশ ক্যাপিটল ভবন থেকে আইন প্রণেতাদের নিরাপদে সরিয়ে নেয়। ক্যাপিটল ভবন থেকে ট্রাম্প-সমর্থকদের হটিয়ে দিতে পুলিশকে অন্তত তিন ঘণ্টা ধরে চেষ্টা চালাতে হয়। ভবনের ভেতর থেকে হামলাকারীদের সরিয়ে দিতে পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে। এ সময় ট্রাম্প-সমর্থকেরা পুলিশের ওপরও হামলা করে এবং ভবনে ভাংচুর চালায়। পরে বুধবার স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে ক্যাপিটল ভবনকে নিরাপদ ঘোষণা করে পুলিশ। পরে আইনপ্রণেতারা ফের অধিবেশনকক্ষে ফিরে আসেন। আবার শুরু হয় যৌথ অধিবেশন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন বাইডেন। কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে ইলেকটোরাল কলেজের ভোট গণনা ও প্রত্যয়ন হওয়ার মধ্য দিয়ে তার জয় আনুষ্ঠানিকভাবে নিশ্চিত করা হবে। ২০ জানুয়ারি প্রেসিডেন্ট হিসেবে বাইডেনের শপথ নেওয়ার কথা। অনানুষ্ঠানিকভাবে ইলেকটোরাল কলেজ ভোটে বেশ বড় ব্যবধানে এগিয়ে আছেন তিনি। বাইডেন পেয়েছেন ৩০৬টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট। আর ডোনাল্ড ট্রাম্প পেয়েছেন ২৩২টি।

আমাদের ফেইসবুক Link: ট্রাস্টনিউজ২৪